সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ০১:০৩ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত খবর :
অটিস্টিক শিশুদের আবাসন ও কর্মসংস্থান করবে সরকার   ||   নারীর প্রতি যৌন ও পারিবারিক সহিংসতা ক্রমাগতই বাড়ছে   ||   শান্তিগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের নব-নির্বাচিত সভাপতি হলেন মৃত্যুঞ্জয়ী ছাত্রনেতা ছদরুল ইসলাম  ||

শিক্ষাখাতে ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছি: দীপু মনি

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৩৯৮ বার পঠিত:
আপডেট সময় : সোমবার, ৩ জানুয়ারী, ২০২২
শিক্ষাখাতে ক্ষতি পুষিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করছি: দীপু মনি

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, করোনার কারণে গত দুই বছরে আমাদের শিক্ষাব্যবস্থায় অবশ্যই কিছুটা ক্ষতি হয়েছে। যদিও আমরা অনেকভাবেই সে ক্ষতি পুষিয়ে ওঠার চেষ্টা করছি। এখন যেহেতু করোনা সংক্রমণ একটু ঊর্ধ্বগামী, সেজন্য করোনা পরিস্থিতি বিবেচনা করতে হবে। যদি করোনা পরিস্থিতি বেশি খারাপ হয় তবে ঘাটতি পুষিয়ে নেওয়া অনেক চ্যালেঞ্জের হবে। এই ঘাটতি একটি শিক্ষাবর্ষে পূরণ করতে পারবো এটা নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। তবে আমরা ঘাটতি কমানোর সর্বোচ্চ চেষ্টা করছি।

রোববার (২ জানুয়ারি) বিকেলে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি। এর আগে তিনি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা (মাউশি) বিভাগের সচিব আবু বকর ছিদ্দীককে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এবার সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে এইচএসসি পরীক্ষা হয়েছে। পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিতে সংক্ষিপ্ত সিলেবাস হবে কি না সে বিষয়ে প্রশ্ন উঠেছে। যেহেতু আমরা সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে এইচএসসি পরীক্ষা নিয়েছি, বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির পরীক্ষাও সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে হবে। তবে সাধারণ জ্ঞানের বিষয়টা ভিন্ন, সেটা যেকোনো জায়গা থেকে হতে পারে।

দীপু মনি বলেন, আমরা নতুন কারিকুলাম নিয়ে আসছি। সেটা বাস্তবায়নে করোনা যেন বাধা হয়ে না দাঁড়ায় এটাই সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ।

তিনি বলেন, স্কুলগুলোতে ক্লাস শুরু হয়েছে। আমরা চাচ্ছি ক্লাসের সংখ্যা বাড়াতে। করোনার সংক্রমণের হার বাড়ায় এখনই স্বাভাবিক কার্যক্রমে যেতে পারছি না। মার্চ পর্যন্ত করোনা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করা হবে। আমরা যদি মার্চ মাস ভালোভাবে পার করতে পারি, আশা করি স্বাভাবিকের দিকে নিয়ে যেতে পারবো।

শিক্ষার্থীদের টিকাদানের বিষয়ে তিনি বলেন, নভেম্বরের গোড়ার দিকে শিক্ষার্থীদের টিকাদান কার্যক্রমের রেজিস্ট্রেশন নিয়ে সমস্যা দেখা দিয়েছিল। সেটার সমাধান হয়েছে। সংক্রমণ কমায় অভিভাবকদের মধ্যেও আগ্রহ কম ছিল বলে মনে হয়েছে। এখন করোনার সংক্রমণ আবার বাড়ছে। তাই টিকা কার্যক্রম জোরেশোরে শুরু হয়েছে। আশা করছি দ্রুত এই কাজ শেষ করতে পারবো।

এ সময় কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খানসহ শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন দপ্তর ও সংস্থার কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ