শুক্রবার, ২১ জুন ২০২৪, ০৯:২৬ পূর্বাহ্ন
সদ্যপ্রাপ্ত খবর :
অটিস্টিক শিশুদের আবাসন ও কর্মসংস্থান করবে সরকার   ||   নারীর প্রতি যৌন ও পারিবারিক সহিংসতা ক্রমাগতই বাড়ছে   ||   শান্তিগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের নব-নির্বাচিত সভাপতি হলেন মৃত্যুঞ্জয়ী ছাত্রনেতা ছদরুল ইসলাম  ||

ফেসবুকের ফেক আইডি থেকে সাবধান থাকবেন যেভাবে

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক / ৪৮৪ বার পঠিত:
আপডেট সময় : বৃহস্পতিবার, ৯ ডিসেম্বর, ২০২১
ফেসবুকের ফেক আইডি থেকে সাবধান থাকবেন যেভাবে

ইন্টারনেটের যুগে পারস্পরিক যোগাযোগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের গুরুত্ব অনস্বীকার্য। বিশেষ করে বৈশ্বিক মহামারির পর থেকে এর ব্যবহার বেড়েছে কয়েক গুণ। প্রতিদিনই বাড়ছে এর ব্যবহারকারীর সংখ্যা।

তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেক আইডিগুলো আতঙ্কের অন্যতম নাম। এরা ভুল তথ্য ছড়িয়ে যেমন মানুষকে বিভ্রান্ত করছে। তেমনি যৌন হয়রানি, অবৈধ আর্থিক লেনদেন, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড পরিচালনা করা, ভুয়া ছবি তৈরি করে ব্ল্যাকমেইল এবং মানহানির মতো জঘন্য অপরাধ করে থাকে।

এসব কারণে এধরনের অ্যাকাউন্টের বিরুদ্ধে বেশ সজাগ ফেসবুক, টুইটারের মতো জনপ্রিয় সামাজিক মাধ্যমগুলো। এ বছর মার্চে মাত্র তিন মাসে ১৩০ কোটি ফেক (ভুয়া) অ্যাকাউন্ট বন্ধ করেছে ফেসবুক। তারপরও কমছে না এর অত্যাচার। দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীও এই বিষয়ে বেশ তৎপর।

অভিযোগ পেলে এসব প্রতারণা বন্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রযুক্তিগত সক্ষমতা রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তারা বলছে, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কাছে অভিযোগ আসার আগেই বড় ধরনের ক্ষতির মুখে পড়ে যায় মানুষ।

এ ছাড়াও কিছু বিষয় নিজে থেকে খেয়াল রাখলে প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা পেতে পারেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক কিছু উপায়-

> কোনো প্রতিষ্ঠান বা জনপ্রিয় ব্যক্তির নাম বা ছবি দেখেই ফ্রেন্ড রিকয়েস্ট পাঠানো কিংবা একসেপ্ট করা থেকে বিরত থাকুন।

> কোনো পরিচিত নাম বা ছবি দেওয়া অ্যাকাউন্ট থেকে যদি আপনার কাছে টাকা চায় তাহলে সেই বন্ধুর সঙ্গে ফোন নাম্বারে কথা বলে নিন।

> কিছুদিন পর পর নিজের নাম সার্চ দিয়ে দেখা উচিত একই নাম এবং ছবি দিয়ে আর কোনো প্রোফাইল ফেসবুকে আছে কি না। থাকলে সঙ্গে সঙ্গে আইনি ব্যবস্থা নিতে হবে। আইনি ব্যবস্থার ক্ষেত্রে প্রথমেই থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করুন। পরবর্তী বেশি সমস্যা হলে দায়ের করতে হবে মামলা।

> এ ছাড়াও বন্ধু, সহকর্মী, স্বজনদের কাছ থেকে কোনো ছবি চাইলে কিংবা কোনো হুমকি পেলে প্রথমে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে ফোন দিয়ে জিজ্ঞাসা করুন। এরপর আইনি ব্যবস্থা নিন।

> কোনো আইডি আপনার কাছে ফেক মনে হলে। কিংবা আপনার পরিচিত অন্য কাউকে বিরক্ত করে থাকলে ফেসবুকে সেই আইডিতে রিপোর্ট করতে পারেন।

> ইমপার্সনেটেড অ্যাকাউন্টের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য ফেসবুকের প্রোফাইল সেটিংসে গিয়ে ‘হেল্প অ্যান্ড সাপোর্ট’ অপশনে ক্লিক করতে হবে। সেখানে ‘হেল্প সেন্টারে’ এ ক্লিক করলে কয়েকটি অপশন আসবে। এর একটি হচ্ছে ‘পলিসিস অ্যান্ড রিপোর্টিং’।

> এই অপশনে ক্লিক করলে আসবে ‘হ্যাকড অ্যান্ড ফেইক অ্যাকাউন্ট’ বিভাগ। সেখানে পাওয়া যাবে ইমপার্সনেশন অ্যাকাউন্টস। এখানেই বলা আছে কীভাবে কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বা মেসেঞ্জার কোনো ছদ্মবেশীর দখলে চলে গেলে কী করতে হবে।

> ফেসবুক বলছে, ছদ্মবেশী নকল প্রোফাইলটি প্রথমে খুঁজে বের করতে হবে। এরপর সেখানে গিয়ে কভার ফটোর ওপর যে তিনটি ডট চিহ্ন রয়েছে তাতে ক্লিক করলে কোন পেজ বা প্রোফাইলকে রিপোর্ট করার অপশন ভেসে উঠবে। নির্দেশনা অনুযায়ী রিপোর্ট করলে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

> এ ছাড়াও বিভিন্ন ভেরিভায়েড গ্রুপে শেয়ার দিতে পারেন সেই আইডি। অন্যদের সাবধান করা এবং আইডিতে রিপোর্ট দিতে বলুন। কোন আইডি বারবার রিপোর্ট করা হলে ওই আইডিটি ফেসবুক থেকে ডিলিট করে দেওয়া হয়।

> আপনার টাইমলাইনে ফেক আইডির লিংক এবং মেসেজের স্ক্রিনশট শেয়ার করতে পারেন অন্যদের সতর্ক করতে।

> আরেকটি কাজ করতে পারেন, তা হলো আইডিটি ব্লক করতে পারেন কিংবা ওই ব্যক্তি থেকে আপনার সব পোস্ট হাইড করে রাখতে পারেন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই রকম আরো সংবাদ